ঢাকা ১০:৩৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
মায়ের কঙ্কাল জড়িয়ে পার করে দিয়েছে তিন মাস

ছোট্ট বিড়াল ছানাটি মায়ের মৃত কঙ্কাল জড়িয়ে পার করলো তিন মাস।

ফাইল ছবি

মোটরসাইকেল চাপায় নিহত হয় মা বিড়াল তার ছোট্ট ছানাটি মাকে ছাড়তে রাজি হয়নি। মায়ের কঙ্কাল জড়িয়ে পার করে দিয়েছে তিন মাস।  ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কলকাতার শ্যামবাজারে ফেসবুকে বুধবারে ঘটনা তুলে ধরেন ভারতের এক বাসিন্দা। তিনি পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় থাকেন তিনি জানান এটি কলকাতা শ্যামবাজারের রাধামাধব গোস্বামীর ঘটনা সম্প্রতি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে বিড়ালছানার এই ছবিটি। যেখানে দেখা গেছে মাটিতে মিশে আছে মায়ের কঙ্কাল আর তাকে আঁকড়ে পড়ে আছে ছোট্ট বিড়াল ছানাটি ।  বিড়ালটিকে এলাকায় কিটি নামে ডাকা হত  । স্থানীয়দের তথ্য মতে প্রায় তিন মাস আগে তার মাকে হারিয়েছে তবে ভুলতে পারেননি। স্থানীয়রা তার মায়ের মরা দেহ ডাস্টবিনে ফেলে আসেন । বিড়াল ছানাটি তার মায়ের মৃত দেহটি  মুখে করে নিয়ে নিজের কাছে রেখে দেই। আশেপাশের প্রতিবেশীদের ভাত খেয়ে আপাতত চলছে তার দিন । তবে মাকে ভুলতে পারেনি তার ছোট্ট ছানাটি গোঙানি শুনতে পান স্থানীয়রা।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

বান্দরবানকে স্মার্ট পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে: ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি আপেল মাহমুদ।

মায়ের কঙ্কাল জড়িয়ে পার করে দিয়েছে তিন মাস

ছোট্ট বিড়াল ছানাটি মায়ের মৃত কঙ্কাল জড়িয়ে পার করলো তিন মাস।

আপডেট সময় ০৯:২০:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ মার্চ ২০২২

মোটরসাইকেল চাপায় নিহত হয় মা বিড়াল তার ছোট্ট ছানাটি মাকে ছাড়তে রাজি হয়নি। মায়ের কঙ্কাল জড়িয়ে পার করে দিয়েছে তিন মাস।  ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কলকাতার শ্যামবাজারে ফেসবুকে বুধবারে ঘটনা তুলে ধরেন ভারতের এক বাসিন্দা। তিনি পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় থাকেন তিনি জানান এটি কলকাতা শ্যামবাজারের রাধামাধব গোস্বামীর ঘটনা সম্প্রতি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে বিড়ালছানার এই ছবিটি। যেখানে দেখা গেছে মাটিতে মিশে আছে মায়ের কঙ্কাল আর তাকে আঁকড়ে পড়ে আছে ছোট্ট বিড়াল ছানাটি ।  বিড়ালটিকে এলাকায় কিটি নামে ডাকা হত  । স্থানীয়দের তথ্য মতে প্রায় তিন মাস আগে তার মাকে হারিয়েছে তবে ভুলতে পারেননি। স্থানীয়রা তার মায়ের মরা দেহ ডাস্টবিনে ফেলে আসেন । বিড়াল ছানাটি তার মায়ের মৃত দেহটি  মুখে করে নিয়ে নিজের কাছে রেখে দেই। আশেপাশের প্রতিবেশীদের ভাত খেয়ে আপাতত চলছে তার দিন । তবে মাকে ভুলতে পারেনি তার ছোট্ট ছানাটি গোঙানি শুনতে পান স্থানীয়রা।