ঢাকা ১০:১৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষ্যে বিএমএ ও স্বাচিপের উদ্যোগে  বিভাগীয় চিকিৎসকদের প্রস্তুতি সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

ফাইল ছবি।

বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঃ খায়রুজ্জামান লিটন

২৯ জানুয়ারি রাজশাহীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষ্যে রাজশাহী বিভাগীয় চিকিৎসকদের প্রস্তুতি সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ডা. কাইছার রহমান চৌধুরী অডিটোরিয়ামে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও বিএমএ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন, স্বাচিপ সভাপতি ডাঃ জামাল উদ্দিন চৌধুরী ও মহাসচিব ডাঃ কামরুল হাসান মিলনকে সম্মাননা স্মারক প্রদানের মাধ্যমে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়ন করছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশের সর্বক্ষেত্রে উন্নয়ন দৃশ্যমান হয়েছে। দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে আবারো শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় নিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

বক্তব্যকালে মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ৫ বছর পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহীতে আসছেন। এই ৫ বছরে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। সম্প্রতি পদ্মা সেতু ও মেট্রোরেলের উদ্বোধন হয়েছে। কিছুদিন পর কর্ণফুলী নদীর তলদেশের টানেল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রীর। অবকাঠামো উন্নয়ন, শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়ন, আর্থিক ও বাণিজ্যিক সব দিকে বাংলাদেশের উন্নয়ন গর্ব করার মতো।

খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, এই বছরটি উন্নয়ন অবকাঠামোর উদ্বোধনের বছর।  একের পর এক উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। বছরটি নির্বাচনী প্রচারণার বছরও। ঠিক সেই সময়ে বিএনপি-জামায়াত চক্র রাজপথে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে নির্বাচন ভুণ্ডুল করতে চায়। তারা নির্বাচনে আসতে চায় না। তারা নির্বাচনকে ভয় পায়। বিএনপি বলছে, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে অংশ নিবে না।’ অথচ আমাদের সংবিধান বলছে, বর্তমান সরকার প্রধান শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে। কেয়ার টেকার সরকারের আর কোন বাস্তবতা বাংলাদেশে নেই।

বিএমএ রাজশাহীর সভাপতি ডাঃ এবি সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ডাঃ জামাল উদ্দিন চৌধুরী ও মহাসচিব ডাঃ কামরুল হাসান মিলন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, জেলা আওয়ামী লীগের আব্দুল ওয়াদুদ দারা, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ডাবলু সরকার, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, কেন্দ্রীয় স্বাচিপের সাবেক সহ-সভাপতি ডা. তবিবুর রহমান শেখ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মহিবুল হাসান, বিএমএ সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ তারিক মেহেদী পারভেজ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ডাঃ চিত্ত রঞ্জন দাস, বিএমএ দপ্তর সম্পাদক ডাঃ শেখ শহিদুল্লাহ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মোঃ জাবেদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা প্রমুখ। সভায় রাজশাহী বিভাগের বিএমএ ও স্বাচিপ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আপলোডকারীর তথ্য

Daily Naba Bani

মিডিয়া তালিকাভুক্ত জাতীয় দৈনিক নববাণী পত্রিকার জন্য সকল জেলা উপজেলায় সংবাদ কর্মী আবশ্যকঃ- আগ্রহীরা আজই আবেদন করুন। মেইল: [email protected]
জনপ্রিয় সংবাদ

বান্দরবানকে স্মার্ট পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে: ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি আপেল মাহমুদ।

প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষ্যে বিএমএ ও স্বাচিপের উদ্যোগে  বিভাগীয় চিকিৎসকদের প্রস্তুতি সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় ০১:৩৩:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩
বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঃ খায়রুজ্জামান লিটন

২৯ জানুয়ারি রাজশাহীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষ্যে রাজশাহী বিভাগীয় চিকিৎসকদের প্রস্তুতি সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ডা. কাইছার রহমান চৌধুরী অডিটোরিয়ামে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও বিএমএ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন, স্বাচিপ সভাপতি ডাঃ জামাল উদ্দিন চৌধুরী ও মহাসচিব ডাঃ কামরুল হাসান মিলনকে সম্মাননা স্মারক প্রদানের মাধ্যমে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়ন করছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশের সর্বক্ষেত্রে উন্নয়ন দৃশ্যমান হয়েছে। দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে আবারো শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় নিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

বক্তব্যকালে মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ৫ বছর পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহীতে আসছেন। এই ৫ বছরে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। সম্প্রতি পদ্মা সেতু ও মেট্রোরেলের উদ্বোধন হয়েছে। কিছুদিন পর কর্ণফুলী নদীর তলদেশের টানেল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রীর। অবকাঠামো উন্নয়ন, শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়ন, আর্থিক ও বাণিজ্যিক সব দিকে বাংলাদেশের উন্নয়ন গর্ব করার মতো।

খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, এই বছরটি উন্নয়ন অবকাঠামোর উদ্বোধনের বছর।  একের পর এক উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। বছরটি নির্বাচনী প্রচারণার বছরও। ঠিক সেই সময়ে বিএনপি-জামায়াত চক্র রাজপথে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে নির্বাচন ভুণ্ডুল করতে চায়। তারা নির্বাচনে আসতে চায় না। তারা নির্বাচনকে ভয় পায়। বিএনপি বলছে, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে অংশ নিবে না।’ অথচ আমাদের সংবিধান বলছে, বর্তমান সরকার প্রধান শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে। কেয়ার টেকার সরকারের আর কোন বাস্তবতা বাংলাদেশে নেই।

বিএমএ রাজশাহীর সভাপতি ডাঃ এবি সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ডাঃ জামাল উদ্দিন চৌধুরী ও মহাসচিব ডাঃ কামরুল হাসান মিলন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, জেলা আওয়ামী লীগের আব্দুল ওয়াদুদ দারা, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ডাবলু সরকার, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, কেন্দ্রীয় স্বাচিপের সাবেক সহ-সভাপতি ডা. তবিবুর রহমান শেখ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মহিবুল হাসান, বিএমএ সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ তারিক মেহেদী পারভেজ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ডাঃ চিত্ত রঞ্জন দাস, বিএমএ দপ্তর সম্পাদক ডাঃ শেখ শহিদুল্লাহ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মোঃ জাবেদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা প্রমুখ। সভায় রাজশাহী বিভাগের বিএমএ ও স্বাচিপ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।