ঢাকা ১১:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাবি চারুকলায় প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হলেন নিশি।

ফাইল ছবি।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের চিত্রকলা, প্রাচ্যকলা ও ছাপচিত্র বিভাগে স্নাতকোত্তর পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণি পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন  মরিওম মঞ্জুরী নিশি।
গত ২৪ এপ্রিল ২০২২ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদের স্নাতকোত্তর পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়।
মরিওম মঞ্জুরী নিশি রাজশাহী জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মনজুর কাদের এর মেয়ে। দুই বোনের মধ্যে বড় নিশি’র বাড়ী সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল কলেজ পাড়ায়। মা মোছা. নিলুফা ইয়াসমিন ও ছোট বোন মমতা মঞ্জুরী নিঝুম। ছোট বোন নিঝুম রাজশাহী কলেজে অর্থনীতি বিভাগ থেকে স্নাতক শেষ পর্ব পরীক্ষা দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, মরিওম মঞ্জুরী নিশি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এ-ই অনুষদে ভর্তি পরীক্ষার সময়েও প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন। তিনি ৪ বছর বয়সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের তৎকালীন চেয়ারম্যান গুনী শিল্পী হাসেম খান স্বাক্ষরিত প্রথম সার্টিফিকেট অর্জন করেন। এরপর শিক্ষা জীবনে পর্যায়ক্রমে গান, আবৃত্তি ও উপস্থাপনায় যুক্ত ছিলেন। পেয়েছেন অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মাননা। শিশুদের মাঝে সময় কাটানো তার অভ্যাস ও ভাললাগা।
নিশির বাবা রাজশাহী জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মনজুর কাদের বলেন, শুনে আসছি, ড্রইং করলে প্রতিভার বিকাশ ঘটে,বিচক্ষণ বুদ্ধি সম্পন্ন হয়,স্বভাব নম্র ধীরস্থির হয়,সহজে রপ্ত করার ক্ষমতা বাড়ে,দৃষ্টি শক্তি বাড়ে,দুরন্তপনা কমে যায়,ঠান্ডা মস্তিষ্কের হয়,একটা কিছু গভীরভাবে চিন্তা করার শক্তি অর্জন করে, এ সব গুনের সব গুলোই আমার মেয়ের মধ্যে বিদ্যমান। আমি আজ ভীষণ আনন্দিত। তার এই ফলাফলে আমি তার মা, সহপাঠী ও সকল শিক্ষককে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
জনপ্রিয় সংবাদ

বান্দরবানকে স্মার্ট পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে: ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি আপেল মাহমুদ।

রাবি চারুকলায় প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হলেন নিশি।

আপডেট সময় ০৪:১৬:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ এপ্রিল ২০২২
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের চিত্রকলা, প্রাচ্যকলা ও ছাপচিত্র বিভাগে স্নাতকোত্তর পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণি পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন  মরিওম মঞ্জুরী নিশি।
গত ২৪ এপ্রিল ২০২২ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদের স্নাতকোত্তর পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়।
মরিওম মঞ্জুরী নিশি রাজশাহী জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মনজুর কাদের এর মেয়ে। দুই বোনের মধ্যে বড় নিশি’র বাড়ী সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল কলেজ পাড়ায়। মা মোছা. নিলুফা ইয়াসমিন ও ছোট বোন মমতা মঞ্জুরী নিঝুম। ছোট বোন নিঝুম রাজশাহী কলেজে অর্থনীতি বিভাগ থেকে স্নাতক শেষ পর্ব পরীক্ষা দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, মরিওম মঞ্জুরী নিশি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এ-ই অনুষদে ভর্তি পরীক্ষার সময়েও প্রথম স্থান অর্জন করেছিলেন। তিনি ৪ বছর বয়সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের তৎকালীন চেয়ারম্যান গুনী শিল্পী হাসেম খান স্বাক্ষরিত প্রথম সার্টিফিকেট অর্জন করেন। এরপর শিক্ষা জীবনে পর্যায়ক্রমে গান, আবৃত্তি ও উপস্থাপনায় যুক্ত ছিলেন। পেয়েছেন অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মাননা। শিশুদের মাঝে সময় কাটানো তার অভ্যাস ও ভাললাগা।
নিশির বাবা রাজশাহী জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মনজুর কাদের বলেন, শুনে আসছি, ড্রইং করলে প্রতিভার বিকাশ ঘটে,বিচক্ষণ বুদ্ধি সম্পন্ন হয়,স্বভাব নম্র ধীরস্থির হয়,সহজে রপ্ত করার ক্ষমতা বাড়ে,দৃষ্টি শক্তি বাড়ে,দুরন্তপনা কমে যায়,ঠান্ডা মস্তিষ্কের হয়,একটা কিছু গভীরভাবে চিন্তা করার শক্তি অর্জন করে, এ সব গুনের সব গুলোই আমার মেয়ের মধ্যে বিদ্যমান। আমি আজ ভীষণ আনন্দিত। তার এই ফলাফলে আমি তার মা, সহপাঠী ও সকল শিক্ষককে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।